টেস্ট অধিনায়কত্ব ছাড়লেন বিরাট, দক্ষিণ আফ্রিকায় সিরিজ হারের পরই সিদ্ধান্ত

খেলাধুলো

HNExpress, কুশল বিশ্বাস : ভারতীয় ক্রিকেটে আবার বিস্ফোরণ। টিম ইন্ডিয়ার টেস্ট ক্রিকেটের  ক্যাপ্টেন্সি থেকে সরে দাঁড়ালেন বিরাট কোহলি । আজ, শনিবার টুইটারে নিজেই এই খবর ঘোষণা করেছেন। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে হারের পরই কেন এই সিদ্ধান্ত, তা নিয়ে তুমুল আলোচনা চলছে। প্রোটিয়াদের কাছে সিরিজ হারের জন্য তো বটেই, ভারতীয় টিমের ব্যাটারদের নিয়েও তীব্র সমালোচনা শুরু হয়েছে।

apploadyou

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ হারের জের। টি-টোয়েন্টির পর এ বার টেস্ট ক্রিকেটের অধিনায়কত্ব থেকেও সরে গেলেন বিরাট কোহলি। শনিবার টুইটারে পোস্ট করে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিলেন তিনি। দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে সিরিজ হারের পরেই এই সিদ্ধান্ত নিলেন ‘কিং কোহলি’। ফলে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে আয়োজিত টেস্ট সিরিজে অন্য নেতাকে দেখা যাবে । টুইটারে কোহলি লেখেন, “গত সাত বছর ধরে প্রতিটা দিন কঠোর পরিশ্রম করে, নিরলস অধ্যাবসায় দেখিয়ে দলকে একটা সঠিক দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে গিয়েছি। আমি সম্পূর্ণ সততার সঙ্গে এই কাজ করেছি এবং সেখানে কোনও কিছুই বাদ রাখিনি। প্রত্যেকটা জিনিসই একটা নির্দিষ্ট স্তরে এসে একটা সময় থেমে যায় এবং ভারতের টেস্ট দলের অধিনায়ক হিসেবে, আমার কাছেও এটাই থেমে যাওয়ার সময় বলে মনে হচ্ছে।”বিরাট যোগ করেন, ‘দীর্ঘ যাত্রাপথে প্রচুর সাফল্য এসেছেে। ব্যর্থতারও সম্মুখীন হতে হয়েছে। কিন্তু কখনও প্রয়াস বা আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি হয়নি। আমি যা কিছু করি, তাতে বরাবর ১২০ শতাংশ উজাড় করে দেওয়ার তত্ত্বে বিশ্বাস করে এসেছি। আমি যদি সেটা করতে না পারি, তাহলে আমি ভালোভাবে জানি যে সেটা করা আমার পক্ষে ঠিক নয়। আমার হৃদয়ে পুরোপুরি স্বচ্ছতা আছে। আমার দলের প্রতি আমি অসত্‍ হতে পারি না।’ বিরাট বলেন, ‘এত দীর্ঘ সময় ধরে আমায় দেশের নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ প্রদানের জন্য বিসিসিআইকে ধন্যবাদ জানাই। আরও বেশি করে ধন্যবাদ জানাচ্ছি আমার সতীর্থদের, যারা প্রথম দিন থেকে দলকে নিয়ে আমার যে লক্ষ্য ছিল, তার সঙ্গী হয়েছে। কোনও পরিস্থিতিতে তারা হাল ছাড়েনি। তোমরা এই যাত্রাকে এতটা সুন্দর এবং স্মরণীয় করে তুলেছ।’

smoothiediet

 

Custom Keto Diet

 

buildpenis