শুভেন্দুর পাশে দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি রাজ্যপালের

কলকাতা জেলা রাজনীতি

HNExpress ওয়েব ডেস্ক : শুভেন্দু অধিকারীর অভিযোগ পেয়েই সক্রিয় রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। প্রাক্তন মন্ত্রীর পাঠানো চিঠির প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সতর্ক করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। বৃহস্পতিবার সকালে মুখ্যমন্ত্রীকে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন রাজ্যপাল। পরে সেই চিঠির প্রতিলিপি টুইটও করেছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীকে লেখা এক চিঠিতে ধনকড় লিখেছেন, ‘শুভেন্দু অধিকারী তাঁকে জানিয়েছেন যে রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করতে তিনি ও তাঁর সহযোগীদের বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলায় জড়ানোর ষড়যন্ত্র করছে পুলিস ও প্রশাসন।’ তাই তাঁকে যাতে কোনওভাবে যাতে ফাঁসানো না হয়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সেদিকে নজর রাখতে বলেছেন রাজ্যপাল। সেইসঙ্গে রাজ্য সরকারকে বিঁধে জগদীপ ধনকড় বলেছেন, প্রশাসনিক শুদ্ধিকরণ প্রয়োজন।

SHEIN Many GEO's

বিধায়ক পদে ইস্তফার পর রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়কে চিঠি দিলেন শুভেন্দু অধিকারী। শুভেন্দুর অভিযোগ, পুলিশ তাঁকে ও তাঁর অনুগামীদের প্রতিহিংসাবশত ফাঁসাতে চাইছে। সেজন্য রাজ্যপালের হস্তক্ষেপ চাইলেন তিনি। প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিচ্ছি, ট্যুইট করে জানালেন রাজ্যপাল।

Times Prime [CPA] IN Times Prime [CPA] IN

বুধবার ধনকড়কে পাঠানো এই চিঠিতে শুভেন্দু লিখেছেন, সাংবিধানিক প্রধান হিসেবে আপনার হস্তক্ষেপ চাইছি, যাতে আমার ও আমার অনুগামীদের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ফৌজদারি মামলা রুজু থেকে পুলিশ-প্রশাসনকে নিরস্ত করা সম্ভব হয়। চিঠিতে শুভেন্দু আরও লিখেছেন, কর্তব্য এবং জনসেবার কথা মাথায় রেখে আমি মন্ত্রিত্ব ছেড়েছি। কিন্তু, মনে হচ্ছে, আমার রাজনৈতিক অবস্থান বদলের ফলে শাসক প্রতিহিংসার পথ বেছে নিতে পারে। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ফৌজদারি মামলা দায়ের করে, পুলিশি দমনের নীতি নেওয়াটা বিপদ সঙ্কেত। ব্যক্তিস্বাধীনতা এবং মানবাধিকার সুনিশ্চিত করার জন্য শাসক দলের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বজায় প্রয়োজন পড়ে না। শুভেন্দুর সেই চিঠি ট্যুইট করে রাজ্যপাল লেখেন, শুভেন্দু অধিকারী আমার হস্তক্ষেপ চেয়েছেন, যাতে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ বা কলকাতা পুলিশ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তাঁর বা তাঁর অনুগামীদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা না করে। প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিচ্ছি।

Pharmeasy [CPS] IN

এদিকে, বৃহস্পতিবার তৃণমূলের সমস্ত পদ ছাড়লেন নন্দীগ্রামে প্রাক্তন বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। অর্থাত্‍ এদিন দলের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্কই ছিন্ন করলেন তিনি। এদিন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে ইস্তাফাপত্র পাঠান। তাতে তিনি লেখেন, তৃণমূল ও দলীয় সমস্ত সংগঠনের সমস্ত পদ থেকে ইস্তাফা দিলাম। এতদিন দলের জন্য কাজের সুযোগ ও চ্যালেঞ্জ দেওয়ার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। তাঁর এই পদত্যাগপত্র এখনও গ্রহণ করেনি তৃণমূল কংগ্রেস। অতিমারীর এক বছর কেটে গেলেও অমানবিকতার ছবি আজও সামনে আসছে ।সচেতন ও মানবিক হওয়ার বার্তা দিচ্ছেন কারডিওলজিস্ট বিনায়ক দেব।

SHEIN Many GEO's