একদিনে সর্বোচ্চ সুস্থ প্রায় সাড়ে চার হাজার বাংলায়,তুলনায় সংক্রমণ কম

ওয়েব ডেস্ক করোনার কামড় (COVID-19)

HNExpress ওয়েব ডেস্ক : বাংলায় একদিনে সর্বোচ্চ সুস্থ প্রায় সাড়ে চার হাজার,তুলনায় সংক্রমণ কম। বেড়েছে সুস্থতার হার। কমেছে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা। তবে লোকাল ট্রেন চালু হলে সংক্রমণ ও মৃত্যু নিয়ন্ত্রণে থাকে কিনা, সেদিকে সবার নজর। যদিও দুর্গাপুজোর পরে সংক্রমণ বাড়বে, এমনটাই অনেকে মনে করেছিলেন।

SHEIN Many GEO's

কিন্তু বাস্তবে সেটা হয়নি। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজ্য স্বাস্থ্য ভবন বুলেটিনের তথ্য অনুযায়ী,একদিনে আক্রান্ত ৩,৮৯১ জন। সোমবার ছিল ৩,৯০৭ জন। তুলনামূলক কমল আক্রান্তের সংখ্যা। এমনকি আক্রান্তের তুলনায় সুস্থতার সংখ্যা অনেক বেশি। তবে এই পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ৪ লক্ষ ১৩ হাজার ১১২ জন। গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪,৪১৫ জন। প্রায় সাড়ে চার হাজার।

Times Prime [CPA] IN Times Prime [CPA] IN

সোমবার ছিল ৪,৩৯৬ জন। তার ফলে বাংলায় এই পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ লক্ষ ৭২ হাজার ২৬৫ জন। সুস্থতার হার বেড়ে ৯০.১১ শতাংশ। একদিনে রাজ্যে ৫৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে কলকাতার ১৫ জন। আর উত্তর ২৪ পরগণার ১৭ জন। বাকি ২১ জেলায় মাত্র ২১ জন। সব মিলিয়ে এই মূহুর্তে রাজ্যে মোট মৃতের সংখ্যাটা ৭,৪০৩ জন। যে ৫৩ জনের মৃত্যু হয়েছে তাদের মধ্যে কলকাতার ১৫ জন। উত্তর ২৪ পরগনার ১৭ জন। দক্ষিণ ২৪ পরগনার ২ জন। হাওড়ার ৩ জন। হুগলি ৩ জন। পূর্ব মেদিনীপুর ৪ জন। পশ্চিম মেদিনীপুর ১ জন। নদিয়া ২ জন। মুর্শিদাবাদ ১ জন। জলপাইগুড়ি ৪ জন। দার্জিলিং ১ জন। ৯ নভেম্বরের তথ্য অনুযায়ী, রাজ্যে মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৭৯ শতাংশ। যা এক সময় ২ শতাংশের ওপরে ছিল। হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন ৬,৫৯৫ জন। সেফ হোমে চিকিত্‍সাধীন ১,৩৩২ জন। এবং হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ২৬,০৯৪ জন।

Pharmeasy [CPS] IN

তবে ১০ নভেম্বরের পরিসংখ্যানে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যাটা কমে ৩৪ হাজারের নিচে নেমে এল। তথ্য অনুযায়ী,৩৩ হাজার ৪৪৪ জন। সোমবার ছিল ৩৪ হাজার ২১ জন। তুলনামূলক ৫৭৭ জন কম। এই পর্যন্ত বাংলায় করোনা নমুনা টেস্ট হয়েছে ৫০ লক্ষ ছাড়িয়ে গেল। তথ্য অনুযায়ী ৫০ লক্ষ ৩ হাজার ২০৪ টি।ফলে প্রতি ১০ লক্ষ জনসংখ্যায় টেস্টের সংখ্যা বেড়ে হল ৫৫,৫৯১ জন। গত ২৪ ঘন্টায় টেস্ট হয়েছে ৪৪ হাজার ১১৭ টি। এই মুহূর্তে সরকারি এবং বেসরকারি মিলিয়ে রাজ্যে ৯৫ টি ল্যাবরেটরিতে করোনা টেস্ট হচ্ছে। আরও ২ টি ল্যাবরেটরি অপেক্ষায় রয়েছে।

SHEIN Many GEO's

আরও ৫টি বেসরকারি হাসপাতালে আইসোলেশন শয্যা তৈরি করা হয়েছে। এর ফলে বর্তমানে ১০১ টি সরকারি এবং বেসরকারি হাসপাতালে আইসোলেশন শয্যা তৈরি করা হয়েছে। এর মধ্যে সরকারি ৪৪ টি হাসপাতাল ও ৫৭ টি বেসরকারি হাসপাতাল রয়েছে।

হাসপাতালগুলিতে মোট কোভিড বেড রয়েছে ১৩,৫০৮ টি। আইসিইউ শয্যা রয়েছে ১,৮০৯টি, ভেন্টিলেশন সুবিধা রয়েছে ১০৯০টি। কিন্তু সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার রয়েছে ৫৮২টি।