কিছুটা কমল রাজ্যে আরও দৈনিক সংক্রমণের হার, কলকাতায় সুস্থতার হার ৮০ শতাংশ ছাড়াল

ওয়েব ডেস্ক করোনার কামড় (COVID-19) রাজ্য

HNExpress ওয়েব ডেস্ক : টেস্টের সংখ্যা একটু বাড়ল। কিছুটা কমল রাজ্যে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা। ফলত, দৈনিক সংক্রমণের হার, যেটা গত কয়েক দিন ধরেই কমার প্রবণতা দেখাচ্ছে, সেটা আরও কিছুটা কমল।
অন্য দিকে রাজ্যে সুস্থতার আরও কিছুটা বেড়েছে। লাগাম টানা গিয়েছে কোভিড-মৃত্যুতেও। সব মিলিয়ে শনিবারও রাজ্যে তিন হাজারের বেশি মানুষ কোভিডে নতুন করে আক্রান্ত হলেও, সামগ্রিক পরিস্থিতি খুব একটা খারাপও নয়।

SHEIN Many GEO's

রাজ্যের কোভিড-তথ্য:– গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন ৩,২৩২ জন। এর ফলে রাজ্যে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ লক্ষ ৩৫ হাজার ৫৯৬। গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর ফলে রাজ্যে এখন মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২,৭৩৭। মৃত্যুহার কমে এসেছে ২.০১ শতাংশে।
গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩,০৮৮ জন। এর ফলে এখনও পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ লক্ষ ৪ হাজার ৯৫৯ জন। রাজ্যে বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২৭,৯০০। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে মাত্র ৯৬ জন সক্রিয় রোগী বেড়েছে। রাজ্যে সুস্থতার হার বর্তমানে অনেকটাই বেড়ে ৭৭.৪১ শতাংশ হয়েছে।

Times Prime [CPA] IN Times Prime [CPA] IN

নমুনা পরীক্ষার তথ্য ও সংক্রমণের হার:– গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৩৬,৩১৮টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত এটাই রাজ্যে দৈনিক সর্বোচ্চ পরীক্ষা। এর ফলে রাজ্যে মোট ১৫ লক্ষ ২৪ হাজার ১৬২টি নমুনা পরীক্ষা হল। রাজ্যে বর্তমানে প্রতি দশ লক্ষ মানুষে ১৬,৯৩৫ জনের করোনা পরীক্ষা হচ্ছে।
প্রতিদিন যে সংখ্যক মানুষের পরীক্ষা হচ্ছে, তার মধ্যে যত শতাংশের কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসছে, সেটাকে বলা হচ্ছে ‘পজিটিভিটি রেট’ বা সংক্রমণের হার। এ দিন রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার ছিল ৮.৮৯ শতাংশ। শুক্রবার এটা ছিল ৮.৯৫ শতাংশে। বৃহস্পতিবার দৈনিক সংক্রমণের হার ছিল ৯.১২ শতাংশ।

Pharmeasy [CPS] IN

কলকাতায় সুস্থতার হার ৮০ শতাংশ, সক্রিয় রোগী ৬০০০-এর নীচে মাইলফলক তৈরি করল কলকাতা।সুস্থতার হারকে ৮০ শতাংশের ওপরে উঠিয়ে শহরে সক্রিয় রোগী কমল ছয় হাজারের নীচে।

SHEIN Many GEO's

গত ২৪ ঘণ্টায় শহরে আক্রান্ত হয়েছেন ৫১৬ জন, ছাড়া পেয়েছেন ৭০৮ জন। মৃত্যু হয়েছে ১২ জনের। শনিবারের পর শহরে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩৫,৬৯৪। সুস্থ হয়ে গিয়েছেন ২৮,৬১৮। শহরে মোট মৃতের সংখ্যা ১১৬৬। কলকাতায় সুস্থতার হার ৮০.১৭ শতাংশ। বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৫,৯১০।

পড়শি চার জেলাতেই সংক্রমণের গতিতে রাশ:– কলকাতার পার্শ্ববর্তী চার জেলাতেই নতুন সংক্রমণ কমেছে। গত দু’ দিন হুগলি আর উত্তর ২৪ পরগণায় আক্রান্তের সংখ্যায় বড়ো রকমের বৃদ্ধি এসেছিল। শনিবার সেটা কমেছে অনেকটাই।
উত্তর ২৪ পরগণায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৪৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন। সুস্থও হয়েছেন ৬৫১। উল্লেখ্য, এই জেলায় গত বৃহস্পতিবার আর শুক্রবার নতুন আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে সাতশোর ওপরে ছিল।
দক্ষিণ ২৪ পরগণায় নতুন করে আক্রান্ত ২০৯ জন, সুস্থ হয়েছেন ২২৪ জন। হুগলিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৮৫ জন, সুস্থ হয়েছেন ১৫১ জন। হাওড়ায় নতুন করে আক্রান্ত ১৫৩ জন, সুস্থ হয়েছেন ২১৯ জন।

রেকর্ড সংক্রমণ হল পশ্চিম মেদিনীপুর।গত ২৪ ঘণ্টায় এই জেলায় আক্রান্ত হলেন ২৬৫ জন। পড়শি পূর্ব মেদিনীপুরে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৬৬ জন। এর পাশাপাশি, মুর্শিদাবাদে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪০ জন। ৫০-এর ওপরে নতুন আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে বাঁকুড়া (৯৭), নদিয়া (৯৬), পশ্চিম বর্ধমান (৮৮), পূর্ব বর্ধমান (৮৫)। বাকি জেলাগুলিতে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা আগের থেকে একটু কমেছে। সক্রিয় রোগী কমেছে একমাত্র নদিয়ায়।
গত ২৪ ঘণ্টায় পশ্চিম মেদিনীপুরে দু’ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম বর্ধমান, মুর্শিদাবাদ নদিয়া আর বীরভূমে একজন করে কোভিড রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

উত্তরবঙ্গের পরিস্থিতি অপরিবর্তিত:– উত্তরবঙ্গের সামগ্রিক পরিস্থিতিতে কোনো বদল নেই। এ দিনও একশোর বেশি নতুন আক্রান্তের খোঁজ মিলল মালদা, দক্ষিণ দিনাজপুর আর দার্জিলিংয়ে।
দক্ষিণ দিনাজপুরে এ দিন সংক্রমিত হয়েছেন ১০৮ জন। অন্যদিকে দার্জিলিংয়ে ১০৪ আর মালদায় ১১০ জন নতুন করে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। এর পাশাপাশি কোচবিহারে ৯১ জন নতুন করে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় দার্জিলিং ৪ জন আর কালিম্পং ও উত্তর দিনাজপুরে একজন করে কোভিডরোগীর মৃত্যু হয়েছে।