কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের তালিকায় থাকা রাজ্যের হটস্পট এলাকাগুলি কোথায় কোথায় যাবে একনজরে

করোনার কামড় (COVID-19)

HNExpress নিজস্ব প্রতিনিধি : করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে রাজ্যে রয়েছে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিরা৷ বুধবার ওই দলটি সারাদিন ঘরবন্দি ছিল৷ কিন্তু আজ বৃহস্পতিবার ওই কেন্দ্রীয় দলটি পরিদর্শনে বেরিয়েছে। তারা কোথায় কোথায় যেতে চায়, তার একটি তালিকা দেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকারকে৷ ইতিমধ্যেই রাজারহাটের কোয়ারেন্টাইন সেন্টার পরিদর্শন করেছেন তাঁরা। সঙ্গে রয়েছেন রাজ্যের এক স্বাস্থ্য আধিকারিক।

SHEIN Many GEO's

সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের তালিকায় রয়েছে, রাজ্যের বেশ কিছু হটস্পট এলাকা, করোনা হাসপাতাল, কিছু মার্কেট৷কেন্দ্রীয় দলটি যে সব হাসপাতালে যেতে চায় তা হল, কলকাতার এম আর বাঙুর হাসপাতাল ও বেলেঘাটা আইডি হাসপাতাল৷ এছাড়া হাওড়ার সত্যবালা আইডি ও গোলাবাড়ির আইএলএস হাসপাতাল ও ডুমুরজলা স্টেডিয়ামের কোয়ারেন্টাইন সেন্টার পরিদর্শন করতে চায় কেন্দ্রীয় দল।

Times Prime [CPA] IN Times Prime [CPA] IN

সল্টলেক আমরি হাসপাতাল, বারাসতের জিএনআরসি নার্সিংহোমের পাশাপাশি রাজারহাটের চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতাল ও হজ হাউসের কোয়ারেন্টাইন সেন্টার দেখতে যেতে চায় অপূর্ব চন্দ্রের নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় দল৷সেইসঙ্গে পাঁশকুড়ার বড় মা হাসপাতাল, তমলুক জেলা হাসপাতাল, হলদিয়া এসডি হাসপাতালের পাশাপাশি হলদিয়া লজিস্টিক কোয়ারেন্টাইন সেন্টারও পরিদর্শনে যেতে চায় কেন্দ্রীয় দলটি৷

Pharmeasy [CPS] IN

এক নজরে দেখে দেওয়া যাক কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল কোথায় কোথায় যেতে চায়:-
কলকাতা:
কলকাতা কর্পোরেশনের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বেলগাছিয়া বস্তি, ৪৯ নম্বর ওয়ার্ডের বৌবাজার, ৫৮ নম্বর ওয়ার্ডের

SHEIN Many GEO's

ট্যাংরা– ধাপা এলাকা,৪৩ নম্বর ওয়ার্ডের বড় বাজার এবং গার্ডেনরিচ থানার অন্তর্গত ১৩৪ ও ১৩৭ নম্বর ওয়ার্ডে এলাকা পরিদর্শনে যেতে চায় কেন্দ্রীয় দল৷তালিকায় রয়েছে বেশ কয়েকটি বাজার৷ সেগুলি হল, হাতিবাগান, বেলেঘাটা বাজার, গার্ডেনরিচের ধানক্ষেতি মার্কেট এবং তিলজলার কোহিনুর মার্কেট৷

হাওড়া-
পশ্চিমবঙ্গের যে চারটি জেলাকে রেড জোনে রেখেছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক তার মধ্যে হাওড়া অন্যতম। এই জেলার হটস্পট এলাকাগুলো ছাড়া সালকিয়া ও পিলখানার পিএম বস্তি এবং চৌরা বস্তি পরিদর্শন করতে চেয়ে মুখ্যসচিবকে চিঠিতে উল্লেখ করেছেন কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের অপূর্ব চন্দ্র।হাওড়ার দু’টি বাজার পরিদর্শন করতে চেয়েছে আন্তঃমন্ত্রক দল। সেগুলি হল- ধূলাগড় পাইকারি বাজার এবং উলুবেড়িয়া বাজার।

উত্তর ২৪ পরগনা-
উত্তর দমদম ও দক্ষিণ দমদম- এই দুটি পৌর এলাকার চারটি ওয়ার্ডে পরিদর্শনে যাবে কেন্দ্রীয় দল। উত্তর দমদম পুরসভার বিরাটি এলাকার ১৯ ও ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের কথা বলা হয়েছে চিঠিতে। সেইসঙ্গে দক্ষিণ দমদম পুরসভার অন্তর্গত ভিআইপি রোড লাগোয়া দক্ষিণদাঁড়ির ২৩ ও ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে যাবে কেন্দ্রীয় টিম।

পূর্ব মেদিনীপুর-
এই জেলার এগরা পুরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডে, তমলুকের শহিদ মাতঙ্গিনী গ্রাম পঞ্চায়েত এবং হলদিয়া শহর এলাকা দেখতে যাবে কেন্দ্রীয় দল।

বাংলায় করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে সোমবার দুপুরেই এ রাজ্যে পৌঁছে গিয়েছিল কেন্দ্রীয় দল৷ কলকাতার দলটি মঙ্গলবার কিছু ক্ষণের জন্য যাদবপুর-টালিগঞ্জ এলাকা পরিদর্শন করেছেন৷ কিন্তু বুধবার রাত গড়িয়ে গেলেও ওই প্রতিনিধি দলের সদস্যেরা কার্যত বাইরে বেরোতে দেখা গেল না৷ তাই প্রশ্ন উঠছে, রাজ্যের তরফে সাহায্যের আশ্বাস দেওয়ার পরেও কেন নিজেদের ঘরবন্দি করে রাখলেন ওই প্রতিনিধি দল?

বুধবার সকালেই গুরুসদয় দত্ত রোডে বিএসএফের ইস্টার্ন কমান্ডের সদর দফতরে পৌঁছয় স্থানীয় বালিগঞ্জ থানার পুলিশ। কলকাতা না জেলা, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলেরাজ্য সরকারের আশ্বাস সত্বেও বালিগঞ্জের দফতর থেকে বেরই হল না কেন্দ্রীয় দল।